নেপালে মৃত্যুর মিছিল, সর্বশেষ সংখ্যা ২০০০ এর বেশি

নেপালে ৭.৯ মাত্রার ভয়াবহ ভূমিকম্পে ক্রমেই বাড়ছে নিহত মানুষের সংখ্যা। বিভিন্ন বার্তা সংস্থার সর্বশেষ খবর অনুযায়ী এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০০০। সঙ্গে বাড়ছে হতাহতের সংখ্যাও।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবর অনুযায়ী এ পর্যন্ত নেপালে অন্তত ২০০০ জনের প্রাণহানির খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। এছাড়া একই ঘটনায় ভারতে নিহত হয়েছেন অন্তত ৩৬ জন। অপরদিকে বাংলাদেশে এ পর্যন্ত ৪ জনের মুত্যর খবর নিশ্চিত করা গেছে।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়, ৭ দশমিক ৯ মাত্রার শক্তিশালী এ ভূমিকম্প নেপালে আঘাত হানে। এতো শক্তিশালী ভূমিকম্প গত ৮১ বছরের মধ্যে এটাই প্রথম।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে খবরে জানানো হয়, ভূমিকম্প ৩০ সেকেন্ড থেকে দুই মিনিট পর্যন্ত স্থায়ী হয়। এতে কাঠমান্ডুতে সবচেয়ে বেশি হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। ঐতিহাসিক ভবন ধসে গেছে। হতাহত ও ক্ষয়ক্ষতির পূর্ণাঙ্গ চিত্র ধীরে ধীরে স্পষ্ট হবে।

চরম এই ক্ষতির মোকাবিলা করতে ভারত সরকারকে পাশে পেতে চেয়েছে নেপাল। ভারত সরকার বিমানে করে ত্রাণ সামগ্রীও পাঠিয়ে দিয়েছেন নেপালের উদ্দেশ্যে। ভারতীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে তৈরি থাকতে বলা হয়েছে বায়ুসেনা ও সীমান্ত সুরক্ষা বাহিনীকে। বিষয়টি নিয়ে নেপালের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। দিয়েছেন পাশে থাকার আশ্বাস।

ভূমিকম্পের এই ভয়াবহতায় ফিরে আসছে ১৯৩৪ সালের ভয়াবহ স্মৃতি। পরিসংখ্যানবিদদের দাবি, সেবার ভূ-কম্পনের মাত্রা ছিল ৮ দশমিক ৩। যার আঘাতে তছনছ হয়ে গিয়েছিল গোটা নেপাল। মারা গিয়েছিলেন কমপক্ষে সাড়ে আট হাজার মানুষ।
Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s